রবিবার, ২৮ মে ২০২৩, ০২:৫৩ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
পীরগঞ্জে মহিষের গাড়িতে বরযাত্রা বারসিক এর উদ্যোগে খাদ্য নিরাপদ স্বাস্থ্য ও নিরাপদ ভবিষ্যৎ শীর্ষক জাতীয় সংলাপ অনুষ্ঠিত ঈশ্বরগঞ্জে ট্রাকচাপায় মোটরসাইকেল আরোহী নিহত শর্তসাপেক্ষে রাষ্ট্রদূতরা পুলিশের এসকর্ট সুবিধা পাবেন : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী নান্দাইলে হক ফাতেমা পাঠাগার পরিদর্শনে উপজেলা একাডেমিক সুপাইভাইজার হরিরামপুরে যুবলীগের শান্তি সমাবেশ ও র‍্যালি অনুষ্ঠিত খুলনা সিটি করপোরেশন নির্বাচনে প্রতীক বরাদ্দ পেলেন ৫ মেয়র পদপ্রার্থী কেসিসি নির্বাচন সুষ্ঠু এবং শান্তিপূর্ণ অনুষ্ঠানে কঠোর প্রশাসন  হরিরামপুরে জনবান্ধব ও জনগনকে সাথে নিয়ে আগামীর পথ চলতে চায় ইউপি সদস্য- মো:লাল মিয়া নান্দাইলে ৯টি চোরাই গরু উদ্ধার, অতিরিক্ত পুলিশ সুপারের প্রেস ব্রিফিং

ভয়াবহ এক আগুনে স্বপ্ন পুড়ে ছাই

জিএসএন নিউজ ২৪ ডেস্ক
  • Update Time : মঙ্গলবার, ৪ এপ্রিল, ২০২৩
  • ৪৮ Time View

ভয়াবহ এক আগুন দেখল দেশবাসী। দেশবাসী নয়, পুরো বিশ্ব দেখল সে আগুন। ভয়াবহ সে আগুনে পুড়ে ছাই হলো বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় ও বিস্তৃত কাপড়ের বাজার, বঙ্গবাজার। ক্ষুদ্রার্থে বঙ্গবাজার পুড়লেও, বৃহদার্থে বঙ্গবাজার নামের আড়ালে পুড়ল চারটি বড় কাপড়ের মার্কেট। দোকান মালিকদের দাবি, এ ঘটনায় প্রায় ৫ হাজার দোকান পুড়ে ছাই হয়ে গেছে। ক্ষতি হয়েছে আনুমানিক দুই হাজার কোটি টাকার।

আজ সকাল ৬টা ১০ মিনিটে আগুনের শুরু। সে আগুন নিয়ন্ত্রণে এলেও, নেভেনি এখনও পুরোপুরি। সে আগুনে ছাই হয়েছে হাজার হাজার দোকানির স্বপ্ন। নিঃস্ব হয়েছেন অসংখ্য মানুষ। সবহারা মানুষের কান্না আর হাহাকারে ভারী হয়েছে বাতাস।

আগুনের খবর পাওয়ার ২ মিনিটের মাথায়ই ঘটনাস্থলে ছুটে যায় প্রথম ফায়ার ইউনিটটি। এক একে প্রায় অর্ধশতাধিক ফায়ার ইউনিট ঘটনাস্থলে যায়। আগুনের ভয়াবহতা টের পেয়ে সেনা, বিমান, নৌবাহিনী ছোটে ঘটনাস্থল লক্ষ্য করে। পাশে দাঁড়ায় বিজিবি, আসে র‍্যাব।

অসংখ্য মানুষের অক্লান্ত পরিশ্রম, চেষ্টা, প্রার্থনা, কান্না আর ভয়াবহ ধ্বংসযঘ্জের পর অবশেষে নিয়ন্ত্রণে আসে আগুন। সাড়ে ছয় ঘণ্টা ধরে জ্বলে সব পুড়িয়ে অঙ্গার করে প্রায় নিভে আসে। তবে এখনও ধিকি ধিকি জ্বলছে, ধ্বংসস্তূপে। সব পুড়ে শেষ হওয়া পর্যন্ত এ আগুন নিভবে না।

জানা গেছে, শুধু বঙ্গবাজার কাঠের মার্কেটেই দোকান রয়েছে আড়াই হাজারের মতো। সামনে ঈদ। সবাই ঈদকেন্দ্রিক বেচাকেনার পণ্য তুলেছিলেন দোকানে। আগুন কেড়ে নিল সব।

এখন আর ব্যবসায়ীদের পুঁজি বলতে কিছু থাকল না। তাদের পক্ষে কথা বলেছেন বাংলাদেশ দোকান মালিক সমিতির সভাপতি হেলাল উদ্দিন। তিনি সরকারের কাছে দাবি জানান, রমজানের ঈদকেন্দ্রিক ব্যবসায় ক্ষতি পুষিয়ে নিতে প্রাথমিকভাবে ব্যবসায়ীদের যেন সাত শ কোটি টাকা থোক বরাদ্দ দেওয়া হয়।

এদিকে ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের দাবি, এলাকাটি অর্থাৎ পুরো মার্কেটপ্লেসটি ২০১৯ সালই ঝুঁকিপূর্ণ ঘোষণা করা হয়েছিল। মার্কেটসংশ্লিষ্টদের এ জন্য ১০বার নোটিস করা হয়েছিল বলেও দাবি করা হয় দপ্তরটির মহাপরিচালকের পক্ষ থেকে।

স্বপ্ন পুড়ে ছাই হয়ে পথে বসা ব্যবসায়ীরা কী আবার মাথা তুলে দাঁড়াতে পারবেন? কবে আবার তাদের মুখে ফুটবে হাসি?

 

Print Friendly, PDF & Email
Spread the love
  •  
  •  
  •  

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
© All rights reserved © 2023
ডিজাইন ও কারিগরি সহযোগিতায়: রায়তা-হোস্ট
raytahost-gsnnews