শুক্রবার, ২০ মে ২০২২, ০৭:৩৫ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
জাগো ফাউন্ডেশনে ক্যারিয়ার গড়ুন প্রবীণ সাংবাদিক আবদুল গাফফার চৌধুরী আর নেই নান্দাইলে ভূমি সেবা সপ্তাহের উদ্ধোধন নান্দাইলে মরহুম আব্দুল জলিল মানব কল্যান ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে বিনামূল্যে শিক্ষা সামগ্রী বিতরণ দেশে বিদ্যুতের দাম ৫৮ শতাংশ বাড়ানোর সুপারিশ এনার্জি রেগুলেটরি কমিশনের উদ্বোধন হতে যাচ্ছে পদ্মা সেতু, ফেরির চেয়ে টোল বেশি, সময় বাঁচবে বহু গুণ ক্যাসিনো সম্রাটের জামিন বাতিল আত্মসমর্পণের নির্দেশ নির্মাণাধীন ঘরের মাটি খুঁড়তে গিয়ে মিলল বিপুল পরিমাণ আগ্নেয়াস্ত্র নান্দাইলে শেখ হাসিনার স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস উপলক্ষে র‍্যালী ও আলোচনা সভা অনুষ্টিত। নান্দাইলে জলাতঙ্ক নির্মূলের লক্ষ্যে ব্যাপক হারে কুকুরের টিকাদান কার্যক্রম

প্রতিবন্ধী যুবক আলভী নাকি মিলন ডিএনএ টেস্টের পর মিলবে পরিচয়

আবু হানিফ সরকার, স্টাফ রিপোর্টার
  • Update Time : বুধবার, ২২ সেপ্টেম্বর, ২০২১
  • ১৫৮ Time View

একটি পরিবারের ডাকা নাম অনুযায়ী প্রতিবন্ধী যুবকের নাম মিলন। আর মিলনের বর্তমান ঠিকানা ময়মনসিংহের নান্দাইল উপজেলার শেরপুর ইউপির হাসেনপুর গ্রামে। পরিবারের দাবি অনুযায়ী এই গ্রামের আবুল কালামের ছেলে তিনি।
ছেলেটি বুদ্ধি প্রতিবন্ধী হওয়ায় স্থানীয় লংগারপাড় ও পাঁচরুখি বাজারে নিয়মিত চলাচল করেন। সেই সুবাদে এসব বাজার এলাকার অনেকের সঙ্গে সুসম্পর্ক গড়ে উঠে তার। পাঁচরুখি গ্রামের মাইক্রোবাস মালিক সোহাগ মিয়ার সঙ্গে তার সম্পর্ক গভীর হওয়ায় তিনি মিলনকে নিয়ে টিকটক তৈরি করে নিজের আইডিতে পোস্ট করেন।

আর এই টিকটক দেখে মিলনকে নিজেদের সন্তান হিসেবে চিহ্নিত করে নারায়ণগঞ্জ জেলার রূপগঞ্জ উপজেলার তারাবো পৌরসভার একটি পরিবার।

পরিবারটির পক্ষে কাজী আক্তার হোসেন নামে একজন বলেন, আমাদের বাসা তারাবো পৌরসভার দক্ষিণ রুপসী এলাকায়। এই প্রতিবন্ধী ছেলেটি আমার ভাতিজা জন্মসূত্রে নাম কাজী আলভী। তার বাবার নাম কাজী অরুণ। আলভীর জন্মের পরে প্রস্রাব পায়খানা হতো না। একদিন পর প্রস্রাব হলেও চারদিনের দিনে ডাক্তারের কাছে নিয়ে পায়খানার রাস্তা তৈরি করতে হয়েছে। তখন ডা. পায়খানার রাস্তা দিয়ে নল দিয়ে রেখেছিল বেশ কিছুদিন। তখন তার প্রচুর রক্তক্ষরণ হতো। সে যখন বড় হতে থাকে তখন থেকেই কিছুটা বুদ্ধি প্রতিবন্ধীর মতো বড় হতে থাকে।

আলভীর চাচা দাবি করা আক্তার হোসেন বলেন, আলভীর জন্ম ২০০০ সালে। ২০১৬ সালের নভেম্বরে বাসা থেকে সবার অজান্তেই বের হয়ে যায়। এরপর অনেক খোঁজাখুঁজি করেছি, সাধারণ ডাইরি করেছি, মাইকিং করেছি, পেপারে বিজ্ঞাপন দিয়েছি। কোথাও খোঁজে পাইনি। পরিবারের একমাত্র পুত্র সন্তানের শোকে কাঁদতে কাঁদতে গত আড়াই বছর আগে তার মা স্টোক করে মারা যায়।

গত দশদিন আগে আমার চাচাতো বোনের ছেলে রিফাত আলভীকে টিকটকে দেখে আমাদের সবাইকে দেখায়। আমরা তাকে শনাক্ত করতে পারি। এরপর যে আইডি থেকে টিকটক পোস্ট হয়েছিল তার আইডিতে বহুবার কমেন্ট করে গত ১৯ সেপ্টেম্বর আইডির মালিক সোহাগ ভাইয়ের সঙ্গে যোগাযোগ করতে পেরেছি। তাকে প্রাথমিক ভাবে বিস্তারিত তথ্য প্রমাণ দেওয়ার পর সোহাগ ভাই তার অবস্থানের ঠিকানা দেন।

২১ সেপ্টেম্বর সোমবার ছেলের সহোদর বোন, এক চাচাতো বোন, এক ফুফু ও আমি (চাচা) আমরা নান্দাইলে এসে পৌঁছে স্থানীয় চেয়ারম্যান মোয়াজ্জেম হোসেন ভূইয়াকে সঙ্গে নিয়ে থানায় কথা বলি। ওসি চেয়ারম্যানকে বলেন, আপনি বিষয়টি দেখেন। বিকেল তিনটার দিকে আমরা আলভীর বর্তমান বাবার বাড়িতে শেরপুর ইউপির হাসেনপুর গ্রামে যাই।

সেখানে চেয়ারম্যান ইউপি সদস্য ও গণ্যমান্য ব্যক্তির উপস্থিতিতে উভয় পরিবারের মধ্যে আলোচনা হয়। কিন্তু ডিএনএ টেস্ট ছাড়া বর্তমান পরিবার আলভীকে দিতে রাজি হচ্ছে না। এজন্য আজ আমরা নান্দাইলেই রয়ে গেছি আগামীকাল আইনি প্রক্রিয়া অনুসরণ করে কাজ করবো।

এ বিষয়ে বর্তমান পরিবারের আবুল কালামের বড় ছেলে ছন্দন মিয়া বলেন, আমরা ঢাকার প্রান্থপথে থাকা অবস্থায় আমার ছোট ভাই মিলন হারিয়ে যায়। হারানোর আট মাস পর হাতিরঝিল এলাকা থেকে খোঁজে পাই। অনেক আগেই গ্রামের বাড়িতে চলে আসি। দু’বছর ধরে মিলন প্রতিবন্ধী ভাতাও পাচ্ছে। আমার ভাই মিলন আমাদের সঙ্গে আছে। ডিএনএ টেস্টে যদি তাদের সন্তান প্রমাণিত হয় তারা নিয়ে যাবে আমাদের কোনো আপত্তি নেই।

এ বিষয়ে স্থানীয় চেয়ারম্যান মোয়াজ্জেম হোসেন ভূইয়া মিল্টন জানান, আপাত দৃষ্টিতে তথ্য প্রমাণের ভিত্তিতে মনে হচ্ছে ছেলেটি নারায়ণগঞ্জের হতে পারে। তবে বর্তমান পরিবার মানতে রাজি না হওয়ায় ডিএনএ টেস্টের পরামর্শ দিয়েছি।

নান্দাইল মডেল থানার ওসি মিজানুর রহমান আকন্দ জানান, বিষয়টি স্থানীয় চেয়ারম্যানকে দেখার জন্য বলেছিলাম যদি সমাধান না হয়ে থাকে তাহলে আইনানুযায়ী ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

Print Friendly, PDF & Email
Spread the love
  •  
  •  
  •  

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
© All rights reserved © 2020
ডিজাইন ও কারিগরি সহযোগিতায়: রায়তা-হোস্ট
raytahost-gsnnews