সোমবার, ০৫ ডিসেম্বর ২০২২, ০৭:৩৪ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
আমি ‘বারিধারায় থাকি, এখানেও অনেক মশা’- স্বাস্থ্যমন্ত্রী বিভাগীয় গণসমাবেশে সোহরাওয়ার্দী-তুরাগ ছাড়া অন্য ভেন্যুর প্রস্তাব এলে ভাববে বিএনপি বাংলাদেশকে ৬ ডিসেম্বর ১৯৭১ ভারত ও ভুটানের স্বীকৃতি ময়মনসিংহের ঈশ্বরগঞ্জে ছাত্রলীগের কমিটি বিলুপ্তে প্রতিবাদ ‘খেলা হবে’ আমি আজীবন স্লোগান দিয়ে যাব: ওবায়দুল কাদের নান্দাইলের উদং মধুপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের সরকারী বই বিক্রি ॥ ১জন আটক একমাত্র ছেলে সড়কে প্রাণ যাওয়া তরুণের মাকে ধান কেটে দিলেন বন্ধুরা দাম বেড়ে ১২ কেজির এলপি গ্যাসের সিলিন্ডার ১২৯৭ টাকা নান্দাইলে আনসার ও গ্রাম প্রতিরক্ষা বাহিনীর উপজেলা সমাবেশ অনুষ্ঠিত নান্দাইল উপজেলা তাঁতীলীগের আহ্বায়ক সন্ত্রাসীদের হামলা আহত

নান্দাইলের পল্লীতে খুনের ঘটনায় বাড়ি-ঘরে হামলা, ভাংচুর, লুটপাট ॥ ৩ জন আহত

স্টাফ রিপোর্টার
  • Update Time : সোমবার, ১৬ আগস্ট, ২০২১
  • ২৯১ Time View

ময়মনসিংহের নান্দাইল উপজেলার রসুলপুর গ্রামে গত বুধবার জমি-জমা সংক্রান্ত বিষয় নিয়ে মো. আবুল হোসেন আকন্দ ওরফে লিটন প্রতিপক্ষ মো. মাসুম মিয়া গংদের সাথে উভয়পক্ষে মারামারির ঘটনা সংগঠিত হয়। এতে করে সুমন মিয়া নামে এক যুবক মারাত্মক আহত হলে তাকে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়ার পথে মৃত্যুবরণ করে। অপরদিকে একই ঘটনায় প্রতিপক্ষ মো. মাসুদ আকন্দ, আঃ রাজ্জাক ও আজিজুল হক মারাত্মক আহত হলে তাদের নান্দাইল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিলে কতর্ব্যরত ডাক্তার তাদের অবস্থা গুরুতর দেখে উন্নত চিকিৎসার জন্য ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার্ড করেন। পরে তাদের কিশোরগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় পুলিশ তাদের গ্রেফতার করে।

 

সুমনের মুত্যু সংবাদ এলাকায় প্রচার হবার সাথে সাথে মো. আবুল হোসেন @লিটন, দুলাল আকন্দ, আঃ কদ্দুস আকন্দ, খোকন মিয়া, রিপন মিয়া সহ ২৫/৩০ জনের একটি দল প্রতি পক্ষের বাড়ি-ঘরে ব্যাপক হামলা চালিয়ে খালী বাড়ি পেয়ে ব্যাপক লুটপাট করেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। মোছাঃ দেলোয়ারা বেগম স্বাক্ষরিত অভিযোগ থেকে জানাগেছে, বিবাদীরা মনজিলা খাতুন, সাইকুল ইসলাম আকন্দ, মাসুম মিয়া আকন্দ, মামুন মিয়া আকন্দের ঘর বাড়ি সহ ১৫জনের বাড়ি ঘর ভাংচুর, নগদ টাকা, টিভি, ফ্রীজ, গরু-ছাগল, ধান-চাল সহ সমস্ত মালামাল লুটপাট করে নিয়ে যায়।

 

অভিযোগ থেকে আরও জানাগেছে, ১৫ পরিবারের বাড়ি ঘরে ভাংচুর সহ ৬০/৭০ লাখ টাকার ক্ষয়ক্ষতি সাধিত হয়েছে। বর্তমানে সরজমিনে পরিদর্শন করে দেখা গেছে, ১৫ পরিবারের কোন সদস্য বাড়ি ঘরে নেই। ঘর বাড়ি এলামেলো অবস্থায় পড়ে আছে। এলাকায় থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে। নান্দাইল মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ মো. মিজানুর রহমান আকন্দ জানান, দু’পক্ষের মারামারির পর একজন মুত্যুবরণ করায় রসুলপুর গ্রামে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়ন করা হয়। খুনের ঘটনায় ১৮জনের নাম উল্লেখ সহ অজ্ঞাত ৬/৭ জনের নামে একটি নিয়মিত মামলা দায়ের করা হয়েছে। প্রতিপক্ষের বাড়ি-ঘরে হামলা ও লুটপাটের ঘটনায় একটি অভিযোগ পাওয়া গেছে।

Print Friendly, PDF & Email
Spread the love
  •  
  •  
  •  

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
© All rights reserved © 2022
ডিজাইন ও কারিগরি সহযোগিতায়: রায়তা-হোস্ট
raytahost-gsnnews