শনিবার, ৩১ অক্টোবর ২০২০, ১০:০৫ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
৮ নং সিংরইল ইউনিয়ন ৩ নং ওয়ার্ড এর মেম্বার প্রদপ্রাথী হিসাবে নির্বাচন করতে চান মোঃ মাসুদ রানা হাজী সেলিম ও ছেলে ইরফান সেলিমের অবৈধ সম্পদের খোঁজে দুদক সিজন-৮ মার্সেল ডিজিটাল ক্যাম্পেইনে অসংখ্য পণ্য ও ক্যাশ ভাউচার উপহার বিশ্বনবীকে অবমাননার প্রতিবাদে ফ্রান্সের পণ্য বয়কটের ডাক জাকির নায়েকের পঞ্চগড়ে রং নম্বরে পরিচয়, বিয়ের কথা বলে মাইক্রোবাসে গৃহবধূকে রাতভর ধর্ষণ মানবেতর জীবনযাপন : ‘এ জীবন থাকার চেয়ে মরে যাওয়া ভালো’ হাতিয়ায় ধর্ষণ মামলায় একজনের যাবজ্জীবন প্রসূতি রোগীর পেটে গজ রেখেই সেলাই করোনাঃশিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ছুটির বিষয়ে সিদ্ধান্ত বৃহস্পতিবার বঙ্গবাজারে ইসলামী ব্যাংকের এজেন্ট ব্যাংকিং শাখার উদ্বোধন

নান্দাইলে চাচা শ্বশুরের বিরুদ্ধে ধর্ষণচেষ্টার অভিযোগ নিয়ে থানায় গৃহবধূ

আঞ্চলিক প্রতিনিধি, ময়মনসিংহ
  • Update Time : শনিবার, ১৭ অক্টোবর, ২০২০
  • ২৪৯ Time View

দাদি শাশুড়িকে নিয়ে নিজ ঘরে ঘুমিয়ে থাকা গৃহবধূকে গলায় ছুরি ধরে ধর্ষণের চেষ্টা করে চাচা শ্বশুর। স্থানীয় চেয়ারম্যান মীমাংসার কথা বলে বিলম্বের কারণে শনিবার এলাকায় অনুষ্ঠিত হওয়া নারী নির্যাতন ও ধর্ষণ প্রতিরোধের এ পুলিশিং সভায় এ ঘটনা প্রকাশ করে বিচার চায় নির্যাতিতা গৃহবধূ। পরে শ্বশুর-শাশুড়ি, স্বামী ছাড়াও এলাকার লোকজনকে নিয়ে থানায় এসে লিখিত অভিযোগ দায়ের করে। এ ধরনের ঘটনা ঘটেছে ময়মনসিংহের নান্দাইল উপজেলার সিংরুইল ইউনিয়নের মহাবৈ কান্দাপাড়া গ্রামে।

স্থানীয় সূত্র ও নির্যাতনের শিকার গৃহবধূ জানান, গত প্রায় তিন বছর আগে বিয়ে হয় ওই নারীর। জীবিকার কারণে স্বামী ও শ্বশুরসহ অনেকেই ঢাকায় থাকেন। সেখানেই দিনমজুরের কাজ করেন তারা। বাড়িতে দাদি শাশুড়িকে সাথে নিয়ে নিজের ঘরে বসবাস করেন ওই নারী। এ অবস্থায় বেশ কিছুদিন ধরে চাচা শ্বশুর এরশাদ উদ্দিন তাকে বিভিন্নভাবে উত্ত্যক্ত করে আসছে। একপর্যায়ে অনৈতিক প্রস্তাবও দেয়। রাজি না হওয়ায় বিভিন্ন ধরনের হুমকি-ধমকি দিয়ে আসে। স্বামীকে ভয়ে ও লজ্জায় এ কথা বলতে পারেনি গৃহবধূ।

নির্যাতিতা গৃহবধূ জানান, উত্ত্যক্তকারী চাচা শ্বশুরকে বিভিন্ন সময় অনুনয়-বিনয় করে তার সঙ্গে এ ধরনের ঘটনা না করার জন্য। কিন্তু কোনোভাবেই দমে যায়নি চাচা শ্বশুর। গত বৃহস্পতিবার রাতে নিজ ঘরে ঘুমিয়ে গেলে তার দাদি শাশুড়ি প্রাকৃতিক ডাক সারতে বাইরে যান। এ সুযোগে চাচা শ্বশুর এরশাদ উদ্দিন ঘরে প্রবেশ করে ঘুমন্ত অবস্থায় তাকে ধর্ষণের চেষ্টা চালায়। সম্ভ্রম বাঁচাতে ধস্তাধস্তি করলে এরশাদ হাতে থাকা ছুরি গলায় ধরে ফের ধর্ষণের চেষ্টা চালায়। এ সময় দাদি শাশুড়ি ঘরে প্রবেশ করতেই দৌড়ে পালিয়ে যায়।

পরদিন সকালে এ ঘটনা এলাকার লোকজনকে জানালে তারা স্থানীয় চেয়ারম্যানকে জানাতে বলে। পরে চেয়ারম্যান সাইফুল ইসলাম মীমাংসা করবেন বলে আশ্বস্ত করেও আর কোনো ধরনের খোঁজখবর নেননি। এর মধ্যে শনিবার স্থানীয় সিংরুইল বাজারে স্থানীয় চেয়ারম্যানসহ এলাকার অনেকের উপস্থিতিতে নারী নির্যতনসহ ধর্ষণের ঘটনা নিয়ে পুলিশের এক সভা চলছিল। সেখানে ওই নারী উপস্থিত হয়ে বিচার চান। সেখান থেকেই নান্দাইল থানার এএসআই মো. শাহিন মিয়া নারীকে থানায় পাঠানোর ব্যবস্থা করেন।

শনিবার দুপুরের থানায় গিয়ে দেখা যায়, ওই নারী তার শ্বশুর-শাশুড়ি, স্বামী ছাড়াও স্বজনদের নিয়ে বিচার চাইতে আসেন। সেখানে এ প্রতিনিধিকে দেখে কান্নায় ভেঙে পড়ে নারীর শাশুড়ি বলেন, আমার ছেলে কাজের জন্য বাইরে থাকে। এ অবস্থায় পুত্রবধূকে বাড়িতে একা পেয়ে সব সময় উত্ত্যক্ত করত ভাসুর এরশাদ উদ্দিন। লোকলজ্জার ভয়ে এ ঘটনা কাউকে বলাও যেত না। এ ঘটনায় তিনি ভাসুর এরশাদের বিচার চান। পরে ওসির কক্ষে গেলে নারীর বক্তব্য শুনে লিখিত এজাহার দেওয়ার পরামর্শ দেন ওসি মিজানুর রহমান আকন্দ। তিনি জানান, এ ঘটনায় তদন্ত করে মামলা নেওয়া হবে।

সিংরুইল ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান  মো. সাইফুল ইসলাম জানান, ঘটনার পরদিন বিচার চাইলেও পরে ওই গৃহবধূ তার কাছে আর আসেনি। সালিসে মীমাংসার কথা বলা হয়নি।

সূত্র: কালের কন্ঠ

Total Page Visits: 265 - Today Page Visits: 1

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
© All rights reserved © 2020
ডিজাইন ও কারিগরি সহযোগিতায়: রায়তা-হোস্ট
raytahost-gsnnews