“মাসের সেরা শিক্ষার্থী” উদ্ভাবনী প্রশংসায় ভাসছেন নান্দাইলের ইউএনও আব্দুর রহিম সুজন

ময়মনসিংহ শিক্ষা

 

শাহজাহান ফকির: শিক্ষার মান উন্নয়নে শ্রেণিকক্ষে ছাত্র-ছাত্রীদের উপস্থিতি বৃদ্ধিকল্পে “মাসের সেরা শিক্ষার্থী” শীর্ষক বোর্ড স্থাপনের উদ্ভাবনী উদ্যোগে প্রশংসায় ভাসছেন ময়মনসিংহের নান্দাইলে দায়িত্বরত উপজেলা নির্বাহী অফিসার মুহাম্মদ আব্দুর রহিম সুজন।

মাত্র পাচঁ মাস পূর্বে দায়িত্ব নিয়েই নান্দাইলের শিক্ষার মান উন্নয়নে ছুটে চলেন উপজেলার বিভিন্ন সরকারী-বেসরকারী শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে। নান্দাইলকে একটি রোল মডেল উপজেলা হিসাবে গড়তে সুশিক্ষার হার বাড়াতে তিনি প্রাণবন্ত চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন।

বিগত ২০১৯ সালের এস.এস.সি ও সমমানের পরীক্ষায় গড় পাসের হার ৫৯% এবং শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোতে ছাত্র-ছাত্রীদের গড় উপস্থিতির হার ৫৯% লক্ষ্য করেন। পরে তিনি এই হতাশাজনক ফলাফল ও উপস্থিতি হার থেকে বের হয়ে আসতে শিক্ষার গুণগত মানোন্নয়ন ও শিক্ষার্থীর উপস্থিতির হার বৃদ্ধি লক্ষ্যে “মাসের সেরা শিক্ষার্থী” শীর্ষক বোর্ড স্থাপন উদ্ভাবন করেন।

উক্ত উদ্দ্যোগে শিক্ষার্থীর শ্রেণিকক্ষে উপস্থিতির হার, শিক্ষা গ্রহনের আগ্রহ, বিবেচ্য মাসে শ্রেণি শিক্ষার ফলাফলের প্রতিযোগীতা, প্রাত্যাহিক সমাবেশে উপস্থিতি ও শৃঙ্খলাবোধ, পরিধেয় পোশাক ও পরিচ্ছন্নতাবোধ, শ্রেণিকক্ষ্যে সহপাঠী ও শিক্ষকদের সাথে আচরণ সহ বিবিধ তথ্য রয়েছে। যা একজন শিক্ষার্থী তথা জাতিকে সুশিক্ষায় গড়ে তোলা সম্ভব হবে। এতে প্রতিটি শ্রেণিকক্ষ্যে ‘মাসের সেরা শিক্ষার্থী’ বোর্ডে সেরাদের ছবি স্থাপন করা হবে যার ফলস্বরূপ শিক্ষার্থীদের মধ্যে শিক্ষায় মনোনীবেশ ও ইতিবাচক প্রতিযোগীতা তৈরী হবে।

অতি অল্প ব্যয়ের এই উদ্দ্যোগটি বাস্তবায়ন কল্পে পাইলটিং হিসাবে নান্দাইল উপজেলার চন্ডীপাশা সরকারী উচ্চ বিদ্যালয় এবং নান্দাইল পাইলট উচ্চ বালিকা বিদ্যালয়ে “মাসের সেরা শিক্ষার্থী” বোর্ড স্থাপন করে ডিসেম্বর মাসের সেরা শিক্ষার্থী বাছাই করা হয়েছে। এতে করে শিক্ষক, শিক্ষার্থী, অভিভাবক ও সুশীল সমাজের মাঝে ব্যাপক সাড়া পড়েছে।

ইউএনও মুহাম্মদ আব্দুর রহিম সুজনের এই উদ্ভাবনী উদ্দ্যোগটির প্রশসংসা করে ময়মনসিংহ জেলা প্রশাসক (ডিসি) মোঃ মিজানুর রহমান বিভাগীয় ইনোভেশন শোকেসিং এর জন্য উদ্দ্যোগটি নির্বাচিত করেন।

বিভাগীয় কমিশনারে কার্যালয়ের আয়োজনে ময়মনসিংহ টাউন হল প্রাঙ্গনে ১৫ ও ১৬ই জানুয়ারি দুই দিনব্যাপী ‘বিভাগীয় ইনোভেশন শোকেসিং-২০২০ অনুষ্ঠিত হয়। উক্ত অনুষ্ঠানের প্রথম দিনে জেলা সদরে এক বর্ণাঢ্য র‌্যালি অনুষ্ঠিত হয়।

পরে আয়োজিত শোকেসিং পরির্দশনে ময়মনিসংহ বিভাগীয় কমিশনার (এনডিসি) খোন্দকার মোস্তাফিজুর রহমান ইউনও আব্দুর রহিম সুজনকে সাধুবাদ জানান। পাশাপাশি অনুষ্ঠানে আগত বিভিন্ন দপ্তরের কর্মকর্তা, সূধীজন ও দর্শনার্থীরা উদ্দ্যোগটির প্রশসংসা করেন।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার মুহাম্মদ আব্দুর রহিম সুজন জানান, “আশা করছি নান্দাইলে শিক্ষার মানোন্নয়নে যে প্রচেষ্টা আমরা চালাচ্ছি তা আলোর দেখা পাবে। ”

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *