গৌরীপুরে ট্রেনের বগি লাইনচ্যুত,রক্ষা পেলেন শতাধিক খেলোয়াড় ৯ ঘন্টা পর উদ্ধার,তদন্ত কমিটি গঠিত

ময়মনসিংহ সারাদেশ

আলম ফরাজী : ময়মনসিংহের গৌরীপুরে চট্রগ্রামগামী আন্তঃনগর বিজয় এক্সপ্রেস ট্রেনের তিনটি বগি লাইনচ্যুত হয় গত বুধবার রাত পৌনে দশটার দিকে।এ ঘটনায় কেউ হতাহত না হলেও অল্পের জন্য রক্ষা পায় জামালপুর জেলার মাদারগঞ্জ উপজেলা ছাড়াও বিভিন্ন উপজেলার উচ্চ বিদ্যালয়ের খেলোয়াড়সহ প্রায় শতাধিক খেলোয়াড় ও ২০জন কর্মকর্তা । তাঁরা জাতীয় স্কুল মাদ্রাসা ও কারিগরি সমিতির শীতকালীন প্রতিযোগিতায় অংশ নিতে কুমিল্লার উদ্যেশ্যে যাচ্ছিলেন।

 

দীর্ঘ ৯ ঘন্টা পর গতকাল বৃহস্পতিবার সকাল সাতটার দিকে ওই তিন বগি উদ্ধার করা হলে ট্রেন চলাচল স্বাভাবিক হয়। এ ঘটনা বাংলাদেশ রেলওয়ের ঢাকার পরিবর্তন কর্মকর্তা রেজাউল করিমকে প্রধান করে চার সদস্য বিশিষ্ট তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। ট্রেনের যাত্রী মাদারগঞ্জ ঝারকাটা উচ্চ বিদ্যালয়ের শরীরচর্চা শিক্ষক মো. আক্কাছ আলী জানান,ট্রেনটি ময়মনসিংহ জংশন থেকে রাত রাত সাড়ে নয়টার দিকে ছেড়ে যায়।

এ সময় আউটার সিগন্যালে কিছুক্ষন দাড়িঁয়ে ছিল। ছাড়ার এক দুই মিনিটিরে মধ্যেই বিকট শব্দে লাইনচ্যুত হয়। এ সময় সকল যাত্রীদের চিৎকারে আতঙ্কের সৃষ্টি হয়। তিনি আরও জানান, ৪৯ তম জাতীয় স্কুল মাদ্রাসা ও কারিগরি সমিতির শীতকালীন প্রতিযোগিতায় অংশ নিতে নিজের বিদ্যালয় ছাড়াও বিভিন্ন উপজেলার প্রায় শতাধিক খেলোয়াড় নিয়ে কুমিল্লার উদ্যেশ্যে যাচ্ছিলেন বিজয় এক্সপ্রেসে করে। তাঁদের সাথে ছিলেন প্রায় ২০জন কর্মকর্তা। দুইটি বগিতে সকলেই অবস্থান করছিলেন। অল্পের জন্য সকলেই রক্ষা পেয়েছেন।

জানা যায়,দুর্ঘটনায় কবলিত বিজয় এক্সপ্রেস ট্রেনটি চট্রগ্রামগামি আন্তঃনগর এক্সপ্রেস। দুর্ঘটনার প্রায় তিন ঘন্টা পর ময়মনসিংহ কেওয়াটখালি লোকো শেডো থেকে উদ্ধারকারী রিলিফ ট্রেন ঘটনাস্থলে পৌঁছে উদ্ধার তৎপরতা শুরু করে। এর মধ্যে যাত্রীদের দুর্ভোগ চরম আকার ধারন করে। গৌরীপুর রেলওয়ে জংশনের স্টেশনের মাস্টার আব্দুর রশিদ বলেন,গতকাল বুধবার রাত সাড়ে নয়টার দিকে ময়মনসিংহ রেলওয়ে জংশন থেকে চট্রগ্রামের উদ্যেশে বিজয় এক্সপ্রেস ছেড়ে যায়। এরপরই গৌরীপুর জংশন স্টেশনের আউটার সিগন্যালের কাছে তিনটি বগি লাইনচ্যুত হয়। রেললাইন ক্ষতিগ্রস্থ হওয়ায় উদ্ধার কাজ একটু বিলম্বিত হয়েছে। বর্তমানে ট্রেন চলাচল স্বাভাবিক রয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *