৪৭ বছর পর এমপি তুহিনের প্রচেষ্টায় পুরন হতে যাচ্ছে ত্রি- ইউনিয়নবাসীর স্বপ্নের সেতু

অর্থনীতি গ্রাম বাংলা ময়মনসিংহ


শাহজাহান ফকির: স্বাধীনতা সংগ্রামের ৪৭ বছর পরে ময়মনসিংহের নান্দাইল উপজেলার রাজগাতী, মুশুল্লী ও গাংগাইল এই ত্রি-ইউনিয়নবাসীর বহুদিনের প্রত্যাশা নরসুন্দা বহমান সুখাইজুরি ও কালীগঞ্জ নদীতে দুটি সেতু তৈরীর স্বপ্ন এবার পুরণ হতে চলছে। নান্দাইল আসনের টানা দুইবারের জাতীয় সংসদ সদস্য মো. আনোয়ারুল আবেদীন খান তুহিনের দৃঢ় প্রচেষ্টায় বর্তমান সরকারের উন্নয়নের ফলস্বরূপ রাজগাতী ইউনিয়নে নরসুন্দা বহমান সুখাইজুরি ও কালীগঞ্জ নদীর উপর দুটি সেতু নির্মাণ হতে যাচ্ছে। এতে করে বদলে যাবে ভিলবাদেরা, দাসপাড়া, রাজগাতী, বনাটি, আউটারগাতী, গাংগাইল, পাছদরিল্যা, মুশুল্লী ও আরও কয়েক গ্রাম সহ নদীর দুপারের মানুষগুলোর জীবন বৈচিত্র। এতে শিা, চিকিৎসা, ব্যবসা-বাণিজ্যি সহ বিভিন্ন দিক থেকে আর পিছিয়ে থাকবেনা সে সমস্ত সুবিধা বঞ্চিত মানুষগুলো। জানাযায়, ৪ঠা ফেব্রুয়ারি/১৮ইং সনে রাজগাতী ইউনিয়নের পূর্বদরিল্যা হোসাইনীয়া দাখিল মাদ্রাসা মাঠে এলজিইডি’র বাস্তবায়ন পরিবেশগত প্রভাব নিরুপন কর্মসূচীর মতবিনিময় সভায় সেতু নির্মাণ প্রকল্প (পর্ব-১) এর আওতায় এই দুটি সেতু নির্মাণের ঘোষণা প্রদান করেন এমপি আনোয়ারুল আবেদীন খান তুহিন। সেতু না থাকায় নদী পারাপারে গ্রামের মানুষের একমাত্র ভরসা ছিল বর্ষকালে একটি নৌকা বা শুকনো মৌসুমে বাশেঁর সাকো। অবহেলিত জনগোষ্ঠীকে উপজেলা সদর সহ নিকটবর্তী হাটবাজার ও শিাপ্রতিষ্ঠানে যাওয়ার যোগাযোগ ব্যবস্থা হিসাবে নৌকা বা বাশেঁর সাকো বেছে নেওয়া ছাড়া আর কোন উপায় ছিলনা। বিশেষ করে স্কুল-কলেজ ও মাদ্রাসা প্রতিষ্ঠানের কোমলমতি শিশু, শিার্থীরা নৌকা দিয়ে পারাপারের সময় নৌকাডুবির ঘটনা যেন নিত্যচর। এ নিয়ে বিভিন্ন পত্র-পত্রিকায় সংবাদ প্রকাশের পর বিষয়টি এমপি তুহিনের নজরে আসলে তিনি দৃঢ় ব্যবস্থা গ্রহন করেন। নান্দাইল উপজেলা প্রকৌশলী মো. আবুল খায়ের মিয়া জানান, “উক্ত দুটি সেতুর অনুমোদন হয়েছে। প্রায় ১৫টি কোটি টাকা ব্যয়ে সেতু নির্মাণের কাজ শীঘ্রই শুরু হবে।” বাংলাদেশ মানবাধিকার কমিশন ময়মনসিংহ জেলা শাখার সাংগঠনিক সম্পাদক ও নান্দাইল উপজেলা শাখার সাধারন সম্পাদক এনামুল হক বাবুল বলেন, ‘‘উক্ত দুটি সেতু নির্মাণের উদ্দ্যোগ গ্রহন ও সংসদ সদস্যের দৃঢ় প্রচেষ্টা খুবই প্রশংসনীয় দাবীদার।’’ এ বিষয়ে এমপি আনোয়ারুল আবেদীন খাঁন তুহিন বলেন, আমি আওয়ামীলীগ সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার উন্নয়ন কাজ জনগণের কাছে পৌছে দেই মাত্র এবং এটাই আমার দায়িত্ব। খুব শীঘ্রই সেতু দুটি নির্মাণের কাজ শুরু হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *