সোমবার, ০৮ অগাস্ট ২০২২, ০৫:০৪ পূর্বাহ্ন

গফরগাঁওয়ে ঝুঁকিপূর্ণ শহীদ আব্দুল বেপারী তোরণ, ধসে পড়ে প্রাণহানির আশঙ্কা

Reporter Name
  • Update Time : বৃহস্পতিবার, ১৪ নভেম্বর, ২০১৯
  • ২২২ Time View

তফাজ্জল হোসেন, গফরগাঁও (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি : ময়মনসিংহের গফরগাঁও পৌর শহরের মধ্যবাজারে নির্মিত স্বাধীনতা যুদ্ধে নিহত শহীদ আব্দুল বেপারী তোরণটি বর্তমানে ভয়াবহ ঝুঁকিপূর্ণ অবস্থায় রয়েছে।পৌর শহরের ব্যস্ততম এলাকায় বেহাল জরাজীর্ণ অবস্থায় দাড়িয়ে থাকা এ তোরণটি যে কোন সময় ধসে পড়ে ঘটতে পারে ভয়াবহ দুর্ঘটনা।

তোরণটি ধসে পড়ে হতাহতের আশঙ্কায় গফরগাঁও বাজার ব্যবস্য়ীদের মধ্যে বিরাজ করছে এখন চরম আতঙ্ক।ঝূঁকিপূর্ণ তোরণটি ভেঙ্গে পূর্ণঃনির্মাণের জন্য শহীদ পরিবার এবং বাজার ব্যবসায়ীদের পক্ষ থেকে বারবার জেলা ও উপজেলা প্রশাসনের কাছে লিখিত আবেদন করেও কোন সাড়া পাওয়া যাচ্ছেনা।
জানাযায়,মহান স্বাধীনতা যুদ্ধ চলাকালে ১৯৭১সালের ১৭এপ্রিল গফরগাঁও বাজারে পাকবাহিনীর ছোঁড়া বোমা নিক্ষে ফলে ব্যবসায়ী আব্দুল বেপারীসহ বেশ কয়েকজন নিহত হন।স্বাধীনতা যুদ্ধে নিহত শহীদদের স্বরণে তৎকালীন এমপি আবুল হাশেম এর উদ্যোগে গফরগাঁও বাজারের প্রবেশ পথে একটি তোরণ নির্মাণ করেন।তোরণটির নাম করণ করা হয় শহীদ আব্দুল বেপারী নামে।তোরণটির নির্মাণ কাজ শেষে ১৯৭৩সালে তৎকালীন সরকারের শিল্পমন্ত্রী সৈয়দ নজরুল ইসলাম এটি আনুষ্ঠানিক ভাবে উদ্বোধন করেন।ন্বাধীনতা যুদ্ধের পর গফরগাঁও বাজারের অবকাঠামোগত উন্নয়নের ফলে শহীদ আব্দুল বেপারী তোরণটি ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে পড়েছে।দীর্ঘদিনের পুরনো তোরণটিতে ফাটল ধরেছে।খসে পড়েছে আস্তরণ।রডগুলো বেরিয়ে এসেছে।তোরণটি এক দিকে হেলে পড়েছে।ধসে পড়ার ভয়ে তোরণের আশপাশের দোকান মালিকদের মধ্যে বিরাজ করছে সর্বত্রই আতংঙ্ক।কখন যানি তোরণটি ভেঙ্গে পড়ে হতাহতের ঘটনা ঘটে।তোরণ সংলগ্ন ঔষধ ব্যবসায়ী নাহিদুল ইসলাম জানান,ভাই আমরা এখন চরম আতঙ্কে আছি।মনের মধ্যে ভয় নিয়ে দোকানে বসে আছি।আল্লাহ যেন আমাদের হেফাজত করেন।
গফরগাঁও বাজার ব্যবসায়ী সমিতির আহবায়ক সাবেক মেয়র মনজুর মিয়া জানান, তোরণটি বর্তমানে ভয়াবহ ঝুঁকিপূর্ণ অবস্থায় আছে।বাজার ব্যবসায়ীদের পক্ষ থেকে প্রশাসন ও স্থানীয় কাউন্সিলরকে অবহিত করা হয়েছে।
শহীদ পরিবারের সদস্য আব্দুল বেপারীর ছেলে আমিনুল হক কামাল জানান,ঝুঁকিপূর্ণ তোরণটি ভেঙ্গে ফেলে পূর্ণঃ নির্মাণের জন্য গফরগাঁও উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও ময়মনসিংহ জেলা প্রশাসক বরাবর লিখিত ভাবে আবেদন করা হয়েছে।এখন বিষয়টি কর্তৃপক্ষের কাছে।এবিষয়ে গফরগাঁও উপজেলা নির্বাহী অফিসার কাজী মাহাবুব উর রহমান জানান, উপজেলা প্রকৌশলীকে নির্দেশ দিয়েছি,পৌরকর্তৃ পক্ষের সাথে আলোচনা করে তোরণটি ভেঙ্গে পূর্ণঃনির্মাণের জন্য।

Print Friendly, PDF & Email
Spread the love
  •  
  •  
  •  

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
© All rights reserved © 2020
ডিজাইন ও কারিগরি সহযোগিতায়: রায়তা-হোস্ট
raytahost-gsnnews